মাত্র ২ জনের জন্য কোটি টাকার অ্যাপার্টমেন্ট, ঘুরে দেখুন শ্রাবন্তীর বাড়ির অন্দরমহল


খুব ছোটবেলা থেকেই তার ইচ্ছে ছিল, তার স্বপ্নের বাড়িটা এমন জায়গায় হবে যেখান থেকে আকাশ দেখার কোনও বাঁধা থাকবে না। বড় হয়ে টলিউডের (Tollywood) নামকরা অভিনেত্রী হয়ে নিজের সেই স্বপ্ন পূরণ করে নিয়েছেন শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় (Srabanti Chatterjee)। আজ তার বাড়িটা স্বপ্নের কোনও রূপকথার রাজপ্রাসাদের তুলনায় কোনও অংশেই কম নয়। হইচই টিভিতে (Hoichoi TV) নিজের বাড়ির অন্দরমহল ঘুরিয়ে দেখালেন শ্রাবন্তী।

প্রথমবার নিজের ‘মনের ঠিকানা’টি সাধারণের জন্য খুলে দিলেন শ্রাবন্তী। তিনি থাকেন বাইপাস লাগোয়া আরবানা কমপ্লেক্সে। মুম্বাইতে বলিউড তারকারা যেমন জুহু বিচের আশেপাশে আপন আপন মনের ঠিকানা গড়ে তুলেছেন, টলিউডের তাবড় তাবড় সেলিব্রিটিরাও কলকাতার আরবানা কমপ্লেক্সেই মনের ঠিকানা খুঁজে পেয়েছেন। পায়েল সরকার, অরিন্দম শীল থেকে শুরু করে রাজ-শুভশ্রী, থাকেন ওই একই কমপ্লেক্সে।

শ্রাবন্তীর বাড়ির ঝাঁ-চকচকে অন্দরমহল ঘুরিয়ে দেখাবে হইচই টিভি। হইচই টিভি অফিশিয়াল পেজে তার কিছু ঝলক তুলে ধরা হয়েছে। সেখানে শ্রাবন্তীকে বলতে শোনা গেল, আমার শৈশবে একটা স্বপ্ন ছিল, “আমার বাড়ির বারান্দাটা অনেক উঁচুতে হবে। আমি সেখান থেকে ইচ্ছে মতো আকাশ দেখতে পাব। আর আমার এই স্বপ্নটা চারপাশের পৃথিবীর থেকে ভীষণ আগলে রেখেছিলাম।”

শ্রাবন্তী ঠিক যেমনটা চেয়ে ছিলেন, সেইমতো আরবানা কমপ্লেক্সের অনেক উঁচুতেই রয়েছে তার আবাসন। সুন্দর করে সাজানো গোছানো রয়েছে তার বাড়ির অন্দরমহল। ফ্ল্যাটের ড্রয়িংরুম সংলগ্ন বারান্দা থেকে আকাশ দেখা যায়। সর্বক্ষণ প্রকৃতির হাওয়া চলাচল করে আবাসনের মধ্যে।

Step inside Srabanti Chatterjee`s Luxurious Apartment in Urbana EM Bypass

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, শ্রাবন্তীর ফ্ল্যাটের ড্রইংরুমে সুন্দর করে সাজানো রয়েছে সোফা সেট, দেওয়ালে লাগানো রয়েছে বড় এলইডি টিভি। অত্যাধুনিক গ্যাজেটসে ভরে রয়েছে চারিদিক। আকাশি এবং সাদা রঙের মিশেলে ড্রইং রুমের দেওয়াল রাঙিয়ে তুলেছেন অভিনেত্রী। তারমধ্যে অফ হোয়াইট রংয়ের একটি দেওয়ালে তুলি দিয়ে নকশা কাটা রয়েছে। বিভিন্ন ফটো ফ্রেম দিয়ে সাজানো রয়েছে সেই দেওয়াল।

শ্রাবন্তীর বেডরুম থেকেও কাঁচের বড় জানলা পেরিয়ে খোলা আকাশের দিকে চোখ রাখা যায়। রাতে সেই ঘর থেকে কলকাতার সৌন্দর্য যেন আলাদা রূপেই ধরা দেয়। শ্রাবন্তীর বাড়ি যদি সম্পূর্ণ ঘুরে দেখতে হয় তাহলে হইচই টিভিতে চোখ রাখতেই হবে।