ষড়যন্ত্রের কাছে হেরে গেল ভালোবাসা! ফুলঝুরিকে ছেড়ে চড়ুইয়ের সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে লালন


হাজারো ঝুট ঝামেলার মধ্যে বারবার ফেঁসে যাচ্ছে লালন এবং ফুলঝুরি! একদিকে ফুলঝুরিকে বিয়ে করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে মানিকদা। অন্যদিকে আবার লালনের পেছনেও ছিনে জোঁকের মতো লেগে আছে চড়ুই। লালনকে সে যেভাবেই হোক বিয়ে করবেই! এই তার জেদ। ত্রিকোণ প্রেমের সম্পর্ক নিয়েই এগোচ্ছে স্টার জলসার (Star Jalsha) ধূলোকণা (Dhulokona)।

তবে লালন এবং ফুলঝুরি তো একে অপরকেই ভালবাসে। লালন তার বাড়িতে জানিয়েও দেয় সে ফুলঝুরিকেই বিয়ে করবে। এমনকি সব জেনেও কিছুতেই সত্যিটা মেনে নিতে নারাজ চড়ুই। লালন ফুলঝুরিকে ভালোবাসে জেনেও সে লালনকে ফুলঝুরির থেকে জোর করে আলাদা করে যেনতেন প্রকারেন বিয়ে করতে চাইছে। ধারাবাহিকের নতুন প্রোমোতেও তেমনই এক দৃশ্য দেখা গেল।

ধুলোকণাতে বসেছে বিয়ের আসরে। লালনকে বিয়ে করবে বলে বউ সেজে মণ্ডপে হাজির হয়েছে ফুলঝুরি। সেখানে আসতেই তার চক্ষু চড়কগাছ। কারণ বউয়ের বেশে তো আগে থাকতেই মণ্ডপে উপস্থিত চড়ুই! দেখে অবাক হয়ে যায় ফুলঝুরি। লালনকে প্রশ্ন করলে সে জবাব দেয়, “আমি কি করবো বলো? আমার তো কোনও উপায় নেই!”

সব দেখেশুনে বিয়ের মন্ডপ ছেড়ে দৌড়ে পালিয়ে যায় ফুলঝুরি। পেছন থেকে শোনা যায় চড়ুইয়ের কটাক্ষ, “হেরো ফুলঝুরি, তোর যোগ্য বর মানিক। বস্তির মেয়ে হয়ে চাঁদে হাত দিতে এসেছিস!” এই প্রোমো দেখে দর্শক মহলে বেজায় শোরগোল পড়ে গিয়েছে। আর হবে নাই বা কেন? দর্শকরা এতদিন অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিলেন লালন এবং ফুলঝুরির বিয়ে দেখবেন বলে।

এখন এই প্রোমো দেখে প্রশ্ন উঠছে শেষমেষ তাহলে কাকে বিয়ে করবে লালন? ফুলঝুরি নাকি চড়ুইকে? আপাতত দর্শকদের মধ্যে উত্তেজনার পারদ চড়ছে। যদিও প্রোমো দেখে চিত্রনাট্যের সমালোচনা করতে ছাড়ছেন না কেউ কেউ। ‘এক ফুল দো মালি’র দৃশ্য দেখতে দেখতে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন যারা তারা দাবি করছেন, এবার তাহলে চড়ুইয়ের সঙ্গে মানিকদারই বিয়ে দিয়ে দেওয়া হোক!